Breaking News

গর্জে ওঠো বাংলাদেশ

ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশের খেলা বাকী দুইটা। প্রতিপক্ষ ভারত এবং পাকিস্তান। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে উভয় ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই।পেশাদারিত্বের কথা তুললে বিগত দশ বছরে অনেক এগিয়ে গেছে টিম টাইগার।সেই সাথে দেশবাসীর নিঃস্বার্থ সাপোর্টতো আছেই।শত বিভেদের মধ্যে এই ক্রিকেটই আমাদের একটা জায়গায় একাত্ত্বতা প্রকাশ করতে শিখিয়েছে।আমাদের আবেগ,উন্মাদনা, ভালোবাসার কেন্দ্রবিন্দুতে লাল সবুজের বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

খেলা যখন ভারত কিংবা পাকিস্তানের সাথে হয় তখন শুধু ওরা এগারোজন খেলে না।খেলে অতীত,বর্তমান এবং ভবিষ্যত।অংশ নেয় ইতিহাস।উপমহাদেশের রাজনীতিও খেলে।প্রতিবাদ,প্রতিশোধ এবং ক্রোধও উইকেট নেয়,ছক্কা হাকায়,ম্যাচ জিতায়।ভারত এবং পাকিস্তানের সাথে আমাদের অনেক হিসাব।দেশে দেশে খেললে জাতীয়তাবাদী দামামা বাজাটাই স্বাভাবিক।তবে যতটা শালীনভাবে এটা বাজানো যায় ততই ভালো।দিন শেষে ক্রিকেট শুধুমাত্র একটা খেলাই মাত্র।
যে মাটিতে দাঁড়িয়ে আকাশ দেখি,ধূলিকণা গায়ে মাখি,আলো বাতাসে বড় হই,সেই মাটির সবকিছুর সাথে মনের টান থাকা চাই।এইতো দেশপ্রেম।দুঃখজনক হলেও সত্যি-বাংলাদেশ ভারত কিংবা বাংলাদেশ পাকিস্তানের খেলার দিনেও উল্লেখযোগ্য কিছু এদেশীয় বন্ধু বাংলাদেশের বিপক্ষে সাপোর্ট করেন।এটা মোটেও কাম্য নয়।আমাদের জাতীয় দল না থাকলে ভিন্ন কথা ছিল।বিশ্ব ক্রিকেটের ময়দানে এরকম একটা যোগ্য দল থাকাতে ঘরের শত্রু বিভীষণ হবেন কেন?
অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, সাউথ আফ্রিকা কিংবা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যেমন সাপোর্ট দিয়েছেন বাংলাদেশকে।আসুন ভারত পাকিস্তানের বিপক্ষেও সেই সাপোর্ট দেই।
গর্জে উঠো বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *